Obak Valobasha | অবাক ভালোবাসা by Warfaze | ওয়ারফেজ

সব আলো নিভে যাক আঁধারে
শুধু জেগে থাক ঐ দুরের তারারা
সব শব্দ থেমে যাক নিস্তব্ধতায়
শুধু জেগে থাক এই সাগর আমার পাশে…

সব বেদনা মুছে যাক স্থিরতায়
হৃদয় ভরে যাক অস্তিত্বের আনন্দে
হৃদয় গভীরে অবাক দৃষ্টিতে
থমকে দাড়িয়েছে মহাকাল এখানে…

শুভ্র বালুর সৈকতে
এলোমেলো বাতাসে গিটার হাতে
নিস্তব্ধতা চৌচির
উন্মাদ ঝংকারে কাঁদি অবাক সুখের কান্না
যেন চুনি হীরা পান্না
সাগরের বুকে আলপনা এঁকে দিয়ে যায়
অবাক ভালোবাসায়
অবাক ভালোবাসায়।

সব আলো নিভে যাক আঁধারে
শুধু জেগে থাক ঐ দুরের তারারা
সব শব্দ থেমে যাক নিস্তব্ধতায়
শুধু জেগে থাক এই সাগর আমার পাশে…

সব কষ্ট বয়ে যাক সুখের ঝড়
হৃদয় ভরে যাক সহজ নীল স্বপনে
হৃদয় গভীরে অবাক দৃষ্টিতে
থমকে দাড়িয়েছে মহাকাল এখানে

শুভ্র বালুর সৈকতে
এলোমেলো বাতাসে গিটার হাতে
নিস্তব্ধতা চৌচির
উন্মাদ ঝংকারে কাঁদি অবাক সুখের কান্না
যেন চুনি হীরা পান্না
সাগরের বুকে আলপনা এঁকে দিয়ে যায়
অবাক ভালোবাসায়
অবাক ভালোবাসায়।

Advertisements

যতদূরে | Jotodurey by ওয়ারফেজ | Warfaze

চুপচাপ চারিদিক মাতাল হাওয়া
পাখিদের কোলাহলে মন যে হারা
হঠাৎ দেখি তোমাকে অচেনা ছায়ায়
আমারই স্বপ্নে আঁকা এযে তুমি…

নিঃশব্দে এলে তুমি আমারই ভুবনে
গোধূলি হয়ে রবে তুমি আমারই চিরকাল…

যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি
যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি।

কত কাল রয়েছি তোমারই পথ চেয়ে
কত রাত কেটেছে তোমারই আশাতে
ও…কত কাল রয়েছি তোমারই পথ চেয়ে
কত রাত কেটেছে তোমারই আশাতে

যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি
যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি।

চুপচাপ চারিদিক মাতাল হাওয়া
পাখিদের কোলাহলে মন যে হারা
হঠাৎ দেখি তোমাকে অচেনা ছায়ায়
আমারই স্বপ্নে আঁকা এযে তুমি…

নিঃশব্দে এলে তুমি আমারই ভুবনে
গোধূলি হয়ে রবে তুমি আমারই চিরকাল…

যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি
যতদূরেই থাকো রবে আমারই
হারিয়ে যেও না কখনো তুমি।

পথচলা

এ মন উন্নাস, ক্ষিপ্ত, রিক্ত, পথ চেনা,
নেই কোন আনন্দ
অথচ এ মন কত উৎসাহে রচে সদা তন্ময়
বসন্ত
আমি আশ্বাস, সুরেরই নিঃশ্বাস শুনেছি
যখন তোমায় চুমি
তবু্ও ভাবিনি তোমায় নিষ্ঠার
মূর্তি তুমি
মুগ্ধ নিমিষের ছবি
মোর ঘরের মাঝে পাঁচিল ভেঙ্গে
আসে বাস্তুহারার শত কান্না
প্রতিটি সন্ধ্যায় একা একা বসে ভাবি
বিথোভেন, শংকর আর না
এ পৃথিবী কালো জলে, বিদ্যুতে,
বাজে পুড়ে জ্বলুক লক্ষ নদী
হয়তো বা আমি তার
পাশে বসে দেখছি পল ক্লি, মাতিসের
ছবি
অথচ কি আনন্দ কি ভয়াবহ আনন্দ
মদিরা চালে দেখ নরনারী চলে,
কামনা-বাসনা দূরন্ত
অথচ, এই পরকিয়া, দূর্বহ এই আল্পনা
লক্ষ রক্ত চোখ
নীলিমা চিরে খোঁজে আশা, ভালোবাসা
হায় আশা, ভালোবাসা

না

আর চার দেয়ালে কেন একা ডুবে থাকা
এই বর্তমানকে দূরে ঠেলে অতীতের
ছবি আঁকা
আর যত কারণে এই দ্বিধায় বাড়াবাড়ি
জাগবেনা আর জীবন তোমার হলে সান্ধ্য
আইন জারি
আর কেন হাত গুটিয়ে বসে থাকা
কিসেরই ভয়ে ভয়ে
আমি নেই কোন নিষিদ্ধ পরিচয়ে
মন যাকে দেবে সিদ্ধান্ত আজই নাও
যাবে এক নিমিষে ছন্দময় হয়ে
শুধু না না না না না বলে, কর
না না আসলে
না না না…
কালজয়ী বাঁধনে আমি বন্দী হতে জানি
থাকবেনা আর তখন আমার মহাবিশ্বের
হাতছানি
আর যদি এ মনের পরিবর্তন হবে ভাবো
ভেবোনা আর না এ তোমার উৎসাহ
হারাবো

সময়

একাকী হৃদয়ে থাকবে আর কতকাল
ছন্নছাড়া অভিমান
নিরালায় একাকী শুনবো আর কতকাল
অন্ধকারের কলতান
নেমেছি তাই আমি জীবনের পথে
বাতাসের কাকলি বলে যায় যে আমাকে
সময়ের ছলনায় ভুলে যাব অভিমান
সময়ের ছলনায় মুছে যাবে পিছুটান
দুঃস্বপ্নের দিন থমকে যায়
শুধু অবিরাম সময় বয়ে যায়
কত বিষাদে কত বিরহে কত প্রহর কেটে গেছে
বোবা সময়ে মৃদু পরশে সব যন্ত্রণা মুছে গেছে
নিঃসঙ্গ প্রাসাদে লিখব আর কতকাল
দীর্ঘশ্বাসের কবিতা
মেঘ ঢাকা আকাশে আঁকব আর কতকাল
রংহীন ধূসর জলছবি