Hashimukh |হাসিমুখ lyrics

প্রতিটি রাস্তায়, প্রতিটি জানালায়
হাসিমুখ, হাসিমুখে আনন্দধারা।
তুমি চেয়ে আছ তাই, আমি পথে হেঁটে যাই,
হেঁটে হেঁটে বহুদুর বহুদুর যেতে চাই।
রোদ উঠে গেছে তোমাদের নগরীতে
আলো এসে থেমে গেছে তোমাদের জানালায়,
আনন্দ হাসিমুখ, চেনা চেনা সবখানে
এরই মাঝে চল মোরা হারিয়ে যাই।
তুমি চেয়ে আছ তাই, আমি পথে হেঁটে যাই,
হেঁটে হেঁটে বহুদুর বহুদুর যেতে চাই।
হারিয়ে যেতে চাই, তোমাদের রাস্তায়,
হারিয়ে যেতে চাই, তোমাদের রাস্তায়,
অনেক আজানা ভীড়ে স্বচ্ছ নিরবতায়,
রোদ উঠে, গেছে চেনা এই নগরীতে নাগরিক
জানালা
হাসিমুখে একাকার।
আনন্দ উৎসব চেনাচেনা সবখানে,
এরই মাঝে আমাদের ছুটে যাওয়া দরকার
তুমি চেয়ে আছ তাই, আমি পথে হেঁটে যাই,
হেঁটে হেঁটে বহুদুর বহুদুর যেতে চাই…

Advertisements

বুলেট কিংবা কবিতায় | Bulet kingba Kobitay lyrics

নিয়ন আলোর রাজপথে, টি.এস.সির
মোড়ে চায়ের দোকানে
বুলেট কিংবা কবিতায়, যদি ফেরার পথে ভুল
হয়ে যায়
মাঝে মাঝে সবুজ পতাকা, দু’হাতের
মাঝে বন্দী
অজস্র কবিতায় আর গানে,
জ্বলে জ্বলে নিঃশ্বেষ
কবি আর কবিতা রাজপথ ছুয়ে যায়
কতশত কবি এমনই এক টি.এস.সির মোড়ে
প্রতিরাতের উদাস চাঁদ দেয়াল
লেখা থেকে দুঃখ কেনে
যদি ফেরার পথে ভুল হয়ে যায়
অসময়ে, অন্ধকারে, দেয়াল জুড়ে বর্নমালার
মিছিল,
ক্লান্ত করুন চোখে……
স্লোগান স্লোগান আর মিছিলের নগরে,
টি.এস.সির নিঃশ্বাস
বুলেট কিংবা কবিতার খাতায়, কবি আর
কবিতার
খুন হওয়া আশ্বাস
দেয়াল লেখা থেকে বর্নমালা যদি আলোর
মিছিল হয়ে যায়
টি.এস.সির মোড় রাতের রাজপথ বুলেট
কিংবা কবিতআয়
যদি ফেরার পথে ভুল হয়ে যায়….
মৃত কবিদের কবিতার আসরে,
ছবি হয়ে থাকেনা
রাতের রাজপথ
পল্টন ময়দান, টি.এস.সির মোড়,
জনসমাবেশ আর বিশাল আবরোধ
এই অবসরে দেয়াল লেখা যদি মানচিত্র
হয়ে যায়
অজস্র কবিতার জনসমাবেশ থেকে বুলেট
কিংবা কবিতায়
যদি ফেরার পথে ভুল হয়ে যায়…

Valobasa megh- ভালবাসা মেঘ

মেঘ ঝড়ে ঝড়ে বৃষ্টি নামে,
বৃষ্টির নাম জল হয়ে যায়
জল উড়ে উড়ে আকাশের গায়ে
ভালবাসা নিয়ে বৃষ্টি সাজায়
ইচ্ছেগুলো ভবঘুরে হয়ে,
চেনা অচেনা হিসেব মেলা
ভালবাসা তাই ভিজে একাকার
ভেজা মন থাক রোদের আশায়
ইচ্ছে হলে ভালবাসিস, না হয় থাকিস
যেমন থাকে স্নিগ্ধ গাংচিল।
চুপি চুপি রোদ, উঁচু নীচু মেঘ,
সারি সারি গাড়ি
দূরে দূরে বাড়ি………
নিভু নিভু আলো,চুপচাপ সব, কনকন
শীতে
ছমছম ভয়……
সংলাপ সব পড়ে থাক, বৃষ্টিতে মন
ভিজে যাক
ভালবাসা মেঘ হয়ে যাক
ঘূরে ঘূরে যদি, দূরে দূরে তবু,
মেঘে মেঘে থাক ভালবাসা
ইচ্ছে হলে ভালবাসিস, না হয় থাকিস
যেমন থাকে স্নিগ্ধ গাংচিল।
মেঘ ঝড়ে ঝড়ে, জল উড়ে উড়ে
ভালবাসা তাই ভেজা মন থাক (২)
ভালবাসা তাই ভিজে একাকার,
ভেজা মন থাক রোদের আশায়
ইচ্ছে হলে ভালবাসিস, না হয় থাকিস
যেমন থাকে স্নিগ্ধ গাংচিল।
ঝিরিঝিরি হাওয়া, কৃষ্ণচূড়ায়
লাল লাল
ফুলে ছুটে ছুটে চলা,………
আধো আলো ছায়া, গুনগুন গাওয়া
পুরোনো দিনের গল্প বলা……..
সংলাপ সব পড়ে থাক, বৃষ্টিতে মন
ভিজে যাক
ভালবাসা মেঘ হয়ে যাক
ঘরে ফেরা পথে, নিরবে নিভৃতে,
মেঘে মেঘে থাক ভালবাসা
ইচ্ছে হলে ভালবাসিস, না হয় থাকিস
যেমন থাকে স্নিগ্ধ গাংচিল।

ইচ্ছে ঘুড়ি

এই হাওয়ায় ওড়াও তুমি, তোমার যত
ইচ্ছে ঘুড়ি
চুপি চুপি মেঘের মেলা, তোমার আকাশ
করছে চুরি
সূর্য বসাও আকাশের নীল, ইচ্ছের রঙ
গোলাপী হলে
দিগন্ত রেখায় সূর্য নামে, ব্যস্ত সময়
যাচ্ছে চলে।
হঠাৎ খেয়ালী এ ঝড়ো হাওয়ায়,
উড়ছে তোমার ইচ্ছে ঘুড়ি
ওড়াও ওড়াও সুতোর টানে,
আকাশের নীল যাচ্ছে চুরি।
শুভ্র সেই মেঘের ভীড়ে, তোমার সব
ইচ্ছে ওড়ে।
আকাশ খেয়ালী মনে, হারায় কিছুই
না জেনে।
তোমার সুতোয় বাঁধা আকাশ,
ঝড়ো হাওয়ায় রঙ হারালে
নির্বাক। ইচ্ছে। আচমকা।
দিশেহারা……
এই আলোয় হাঁটছো একা, সঙ্গী কর আমায়
তুমি।
বেয়াড়া যত মেঘের ছায়া,
করছে চুরি স্বপ্নভূমি
নীলের আকাশ গোলাপী হলে,
ইচ্ছে ঘুড়ি যাচ্ছে চলে
সূতোর বাঁধা ছাড়িয়ে আকাশ, অন্য ভূবন
দেখবে বলে।
হঠাৎ খেয়ালী এ ঝড়ো হাওয়ায়,
ভাঙছে তোমার মেঘলা রেখা
ওড়াও ওড়াও সুতোর টানে,
আকাশ আবার হবে যে দেখা ।

গোধূলী

দিগন্ত জুড়ে নিলীমার মাঝে
পলাতক সময় করে পরিহাস
স্তব্ধ নিঃশ্বাস দূরে ঠেলে
আসি আমি ফিরে বারেবার।
ছুঁয়ে যাই আবারও হারাই
একই আকাশের গোধূলী
অনন্ত পতন, অনন্ত সময়
একই ভাঙ্গনের কথা একই পথ,
আমারই জন্যে সহস্র সূর্য
দেবে একই আলো চিরকাল।
ছুঁয়ে যাই আবারও হারাই
একই আকাশের গোধূলী
আমি বুঝিনা কেন,
একই মাটিতে কেন এত রক্তের
রং খেলা।
আমি জানিনা কেন,
একই মানুষের একই স্পর্শে কেন এত
ছোঁয়া।
আমি হারিয়ে যাই এ মায়াজালে,
পরাধীনতার এ বাঁধনে,
তবু যেতে চাই স্বপ্নের আলোয়,
সকল আঁধার ভেঙ্গে আলো ছায়ায়
ছুঁয়ে যাই আবারও হারাই
একই আকাশের গোধূলী